-13%
, , , , ,

আল-কুরআনের ভাষা শিক্ষা

(11 customer reviews)
Islamic Media BD
Availability:

148 in stock


  • “আল-কুরআনের ভাষা শিক্ষা” গ্রন্থটি সম্পূর্ণ রঙিন ছাপা এবং A4 সাইজের একটি বই।
  • এই গ্রন্থটি এমন একটি গ্রন্থ যা অধ্যয়নের মাধ্যমে সর্বস্তরের মানুষ বিশেষ করে জেনারেল শিক্ষায় শিক্ষিতগণ খুব সহজেই আল-কুরআনের ভাষাটি আয়ত্ত করতে সক্ষম হবেন। ইনশাআল্লাহ।
  • গ্রন্থটি সম্পন্ন করতে সময় লেগেছে ৫ থেকে প্রায় সারে ৫ বছর।
  • গ্রন্থটির প্রতিটা টপিক সাজিয়ে গুছিয়ে অত্যন্ত সহজভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে।
  • গ্রন্থটিতে বাংলা, ইংরেজি এবং আরবীকে পাশাপাশি রেখে সমন্বয় করা হয়েছে। এতে করে জেনারেল শিক্ষায় শিক্ষিতগণ খুব সহজেই প্রতিটা টপিক অনুধাবন করতে পারবেন। ইনশাআল্লাহ।
  • এছাড়া গ্রন্থটিতে প্রচুর পরিমাণে টেবিল ব্যাবহার করা হয়েছে। যাতে করে পাঠক আরও সহজে বিষয়গুলো মনে রাখতে পারেন। আর টেবিল ব্যাবহার করার ক্ষেত্রেও সাজিয়ে গুছিয়ে অত্যন্ত সহজভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে।
  • গ্রন্থটির আর একটি বিশেষ বৈশিষ্ট্য হচ্ছে, গ্রন্থটিতে প্রচুর পরিমাণে উদাহরণ উপস্থাপন করা হয়েছে। আর উদাহরণগুলো উপস্থাপন করার ক্ষেত্রেও আরবীর সাথে সাথে বাংলা এবং ইংলিশ অর্থও সংযুক্ত করা হয়েছে।
  • তাছাড়া বইটিতে যতগুলো উদাহরণ পেশ করা হয়েছে, তার প্রায় ৯৯% উদাহরণ পবিত্র কুরআন আল-কারীম থেকে উপস্থাপন করা হয়েছে।
  • সর্বোপরি আমার এই দীর্ঘ ৫ বছরের গবেষণায় আমি বলতে পারি, এ বিষয়ের উপর এমন স্টাইলে বই এটাই প্রথম। কথাটি আমি অহংকার করে বলছি না বরং এটা আল্লাহ তায়ালার দান করা তৌফিক, যা তিনি আমাকে দান করেছেন। আলহামদুলিল্লাহ।
  • যাইহোক, গ্রন্থটি সর্বমোট ৩৭৫ পৃষ্ঠা এবং ১০টি অধ্যায়ে সমাপ্ত হয়েছে। আলহামদুলিল্লাহ। 

বইটি একটু পড়ে দেখুন

৳ 650 ৳ 750

148 in stock

লেখকের কথা

  الْحَمْدُ لِلّٰهِ وَحْدَه وَالصَّلَاةُ وَالسَّلَامُ عَلٰى مَنْ لَّا نَبِيَّ بَعْدَه وَ عَلٰى آلِــهِ وَصَحْبِــهِ اَجْمَعِيْنَ

সমস্ত প্রশংসা মহান আল্লাহ তায়ালার জন্য। যিনি ছাড়া আর কোন সত্য ইলাহ নেই এবং যিনি মানব জাতির হেদায়েতের জন্য মহা পবিত্র আল-কুরআন অবতীর্ণ করেছেন। দরূদ ও সালাম হজরত মুহাম্মাদ সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর উপর। যিনি সর্বশ্রেষ্ঠ এবং সর্বশেষ রাসুল। অতঃপর মহান আল্লাহ তায়ালার অশেষ কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি। যিনি আমাকে “আল-কুরআনের ভাষা শিক্ষা” নামক এই গ্রন্থটি রচনা করার তৌফিক দান করেছেন। আলহামদুলিল্লাহ।

শ্রদ্ধেয় পাঠকবৃন্দ! আসসালামু আলাইকুম ওয়া রাহমাতুল্লাহ। প্রথমেই একটি কথা বলে নিচ্ছি। আর তা হচ্ছে, আমি আরবী ভাষার কোন পণ্ডিত ব্যক্তি নই। আমার পরিচয়: আমি মোঃ সেলিম হোসেন, পিতা মৃত আহম্মদ আলী (রহিমাহুল্লাহ), মাতা তহুরা খাতুন। আমার জন্মস্থান পাবনা জেলার, বেড়া থানার অন্তর্গত চাকলা গ্রামে। আমি কোন মাদরাসার ছাত্রও নই। আমার লেখাপড়া মূলত জেনারেল লাইনে। তবে ছোটবেলা থেকেই পবিত্র কুরানের প্রতি আমার প্রচণ্ড ভালোবাসা ছিল। আর সেই ভালোবাসা থেকেই মহান আল্লাহু সুবহানাহু ওয়া তায়ালা আমাকে যেমন তৌফিক দিয়েছেন সহি শুদ্ধ কুরআন তেলাওয়াত করার, তেমনি তৌফিক দিয়েছেন কুরআনের অর্থ অনুধাবনও করার। আলহামদুলিল্লাহ। আমি ছোট্টো থেকেই দেশি বিদেশি ক্বারীদের প্রচুর তেলাওয়াত শুনতাম। আমার প্রিয় ক্বারী ছিলেন, বাংলাদেশের ক্বারী ওবাইদুল্লাহ (রহিমাহুল্লাহ) এবং মিশরের প্রখ্যাত ক্বারী রাগিব মুস্তাফা গালবাশ (রহিমাহুল্লাহ)।

যাইহোক, এভাবে কুরআন শ্রবণ করতে করতে একটা সময় আমার প্রচণ্ড আগ্রহ সৃষ্টি হলো, কুরআনের অর্থ অনুধাবন করার, কুরআন বুঝে তেলাওয়াত করার এবং কুরআন বুঝে শ্রবণ করার। আলহামদুলিল্লাহ। আর এই গভীর আগ্রহ থেকেই শুরু হলো কুরআন বোঝার চেষ্টা সাধনা। এতটাই চেষ্টা সাধনা যে, এটা বুঝার জন্য আমার গোসল খাওয়া দাওয়া পর্যন্ত ঠিকমত হত না। দিন শুরু হতে না হতেই শেষ হয়ে যেত, আর রাত শুরু হতে না হতেই গভীর হয়ে যেত। আলহামদুলিল্লাহ। কুরআন বুঝার চেষ্টা সাধনার কাজ ছাড়া অন্য সকল কাজকে আমার অনর্থক মনে হত, এই কাজ ছাড়া আর কোন কাজই আমার ভাল লাগতো না। দিনের পর দিন, রাতের পর রাত চলতো আমার এই চেষ্টা সাধনা। সাথে থাকতো একটা কম্পিউটার, আরবী শিক্ষার দেশি বিদেশি কয়েক ডজন বই এবং পিডিএফ ফাইল। এভাবেই দীর্ঘ ৫ বছর চেষ্টা সাধনার মধ্য দিয়ে মহান আল্লাহ সুবহানাহু তায়ালা আমাকে আল-কুরানের ভাষা অনুধাবন করার এবং সেই সাথে “আল-কুরআনের ভাষা শিক্ষা” নামক এই গ্রন্থটি রচনা করার তৌফিক দান করেছেন। আলহামদুলিল্লাহ।

শ্রদ্ধেয় পাঠকবৃন্দ! হতাশ হবার কোন কারণ নেই। আমি যে পরিমাণ কষ্ট করেছি, সেই পরিমাণ কষ্ট আপনাকে করতে হবে না। ইনশাআল্লাহ। কারণ আল্লাহু সুবহানাহু ওয়া তায়ালা আমাকে “আল-কুরআনের ভাষা শিক্ষা” নামক এমন একটি গ্রন্থ রচনা করার তৌফিক দান করেছেন, যেই গ্রন্থটির স্টাইলে আগে থেকেই যদি কোন গ্রন্থ থেকে থাকতো, তবে আল-কুরানের ভাষা অনুধাবন করার জন্য ৫ বছর নয় বরং ৫ মাসই আমার জন্য যথেষ্ট ছিল। ইনশাআল্লাহ। তাই আমি বলবো, যদি আপনার আল-কুরানের ভাষা অনুধাবন করার গভীর ইচ্ছা আর আগ্রহ থেকে থাকে, তবে আল্লাহর উপর ভরসা করে “আল-কুরআনের ভাষা শিক্ষা” গ্রন্থটিকে সাথে নিয়ে আল-কুরানের ভাষা অনুধাবন করার যাত্রা শুরু করে দিন। ইনশাআল্লাহ।

শ্রদ্ধেয় পাঠকবৃন্দ! আল-কুরানের ভাষা তো আপনাকে শিখতেই হবে। কারণ “কুরআন” এমনই এক অলৌকিক কিতাব, যার শাশ্বত বাণীগুলো যদি কেউ সঠিকভাবে বুঝে বুঝে পড়ে এবং এর আলোকে জীবন গড়ে, তাহলে তার জীবন শান্তির সুবাতাসে ভরে উঠতে বাধ্য। এমনকি তাকে কক্ষনো গ্রাস করতে পারবে না ভ্রান্তির কোন কালো ছায়া; কিন্তু আফসোসের বিষয় হল জাতির বৃহৎ অংশই কুরআন বোঝার জ্ঞান রাখে না বা বোঝার জন্য চেষ্টাও করে না। শুধু এ কারণেই মুসলমান আজ পশ্চাৎপদ জাতিতে পরিণত হয়েছে।

শ্রদ্ধেয় পাঠকবৃন্দ! কুরআন এসেছে আমাদের আলোর পথ দেখানোর জন্য। সত্য-মিথ্যার পার্থক্য নির্ণয়ের জন্য। এখন এ কুরআনই যদি আমরা না বুঝি তাহলে আলোর পথের আশা করি কীভাবে? হ্যাঁ, কুরআন না বুঝে পড়লেও পুণ্য হয়, এটা আমি অস্বীকার করছি না। কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে, না বুঝে শুধু গড়গড়িয়ে পড়লে কি এর প্রকৃত লক্ষ্য ও প্রকৃত উদ্দেশ্য অর্জিত হয়ে যাবে? উত্তর হচ্ছে না, কক্ষনোই না। লক্ষ্য করে দেখুন, ইংরেজি বা অন্য কোন ভাষা বা সাধারণ শিক্ষা অর্জন করতে গিয়ে আপনি যে পরিমাণ সময়, শ্রম, মেধা, এবং অর্থ ব্যয় করেছেন; তার এক বিন্দু সময়, শ্রম, মেধা এবং অর্থও কি আপনি পবিত্র কুরআনের ভাষাটাকে বুঝে পড়ার জন্য, পবিত্র কুরআনের ভাষাটাকে শিক্ষা করার জন্য ব্যয় করেছেন?? এটা নিয়ে কাল কিয়ামতের ময়দানে আল্লাহ্‌ আপনাকে প্রশ্ন করলে আপনি কি জবাব দিবেন? ভেবে দেখুন…।

যাইহোক, অনেকেই মনে করেন কুরআন বোঝা যেন একটি অসম্ভব কাজ। অথচ আল্লাহ তায়ালা পবিত্র কুরআনে চার চার বার বলছেন, ‘আমি কুরআনকে সহজ করে দিয়েছি বোঝার জন্য। অতএব, কোনো চিন্তাশীল আছে কি? (সূরা ক্বামার: ১৭)।

সুতরাং শ্রদ্ধেয় পাঠকবৃন্দ! আর নয় কালক্ষেপণ! চলুন আমরা যে যে অবস্থায় আছি, সে সেই অবস্থা থেকেই কুরআনের ভাষা শিক্ষা করতে যাত্রা শুরু করি। কেউ কুরআন তিলাওয়াত করতে না পারলে, সে কুরআন তিলাওয়াত শিক্ষা করা শুরু করি, কেউ কুরআন তিলাওয়াত করতে পারলে, সে কুরআন আরও সহি শুদ্ধ করে তিলাওয়াত করা শিক্ষা করা শুরু করি, কেউ সহি-শুদ্ধ করে তিলাওয়াত করতে পারলে, সে কুরআনের অর্থ শিক্ষা করা শুরু করি। হোক সে ছাত্র, হোক সে শিক্ষক, হোক সে মাদরাসা বা জেনারেল লাইনে পড়ুয়া, হোক সে চাকরিজীবী বা ব্যবসায়ী বা অন্য যে কোন পেশারই; সকলের জন্যই মহান আল্লাহ তায়ালার ঘোষণাঃ ‘আমি কুরআনকে সহজ করে দিয়েছি বোঝার জন্য। অতএব, কোনো চিন্তাশীল আছে কি? (সূরা ক্বামার: ১৭)। মহান আল্লাহ তায়ালা আমাদের সকলকে সহি-শুদ্ধভাবে বুঝে বুঝে কুরআন তিলাওয়াত করার, কুরআনের প্রত্যেকটি আয়াতের অর্থ অনুধাবন করার এবং কুরআন দিয়ে আমাদের জীবন গড়ার তৌফিক দান করুক। আমিন। ছুম্মা আমিন।

গ্রন্থটির বৈশিষ্ট্য

১। আলহামদুলিল্লাহ। “আল-কুরআনের ভাষা শিক্ষা” গ্রন্থটিকে মহান আল্লাহ তায়ালা এমন ভাবে সম্পন্ন করার তৌফিক দিয়েছেন যে, তা অধ্যয়নের মাধ্যমে সর্বস্তরের মানুষ বিশেষ করে জেনারেল শিক্ষায় শিক্ষিতগণ খুব সহজেই আল-কুরআনের ভাষাটি আয়ত্ত করতে সক্ষম হবেন। ইনশাআল্লাহ।

২। মহান আল্লাহ তায়ালা এই মহৎ কাজটির উপর আমাকে দীর্ঘ ৫ বছর গবেষণা করার তৌফিক দান করেছেন। আলহামদুলিল্লাহ। তাই এই দীর্ঘ সময়ে এবিষয়ের উপর দেশি বিদেশী প্রচুর বই ঘাটাঘাটি করার সুযোগ আমার হয়েছে। সকলেই যে যার মত করে চেষ্টা করেছেন, মহান আল্লাহু সুবহানাহু ওয়া তায়ালা তাদেরকে এর উত্তম প্রতিদান দিক। তবে বইগুলো নিয়ে স্টাডি করতে গিয়ে আমি কোন বইকেই তেমন একটা সাজানো গোছানো পাইনি। এতে অনেক সময় অনেক বিষয় অনুধাবন করতে আমাকে বেশ কষ্টের সম্মুখীন হতে হয়েছে। তাই সে দিকে খেয়াল রেখে আমার এই “আল-কুরআনের ভাষা শিক্ষা” গ্রন্থটিকে সাজানো গোছানোর ব্যাপারে আমি যথেষ্ট যত্নবান হতে চেষ্টা করেছি। আলহামদুলিল্লাহ। এতে করে যে কেউই গ্রন্থটি একটু মনোযোগ দিয়ে স্টাডি করলে খুব সহজেই অনুধাবন করতে পারবে। ইনশাআল্লাহ।

৩। “আল-কুরআনের ভাষা শিক্ষা” গ্রন্থটির একটি বিশেষ বৈশিষ্ট্য হচ্ছে, এতে বাংলা, ইংরেজি এবং আরবীকে পাশাপাশি রেখে সমন্বয় সাধান করা হয়েছে। যাতে করে বাংলা এবং ইংরেজির সাথে আরবীকে সমন্বয় করে খুব সহজেই বিষয়গুলো উপলদ্ধি করা যায়। যেখানেই কোন আরবী শব্দ এসেছে, সেখানেই আরবীর সাথে সাথে বাংলা এবং ইংলিশ শব্দও সংযুক্ত করা হয়েছে। তাছাড়া প্রচুর পরিমাণে টেবিল ব্যাবহার করে প্রতিটি টপিককে সাজিয়ে গুছিয়ে অত্যন্ত সহজভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে। আলহামদুলিল্লাহ।

৪। গ্রন্থটির আর একটি বিশেষ বৈশিষ্ট্য হচ্ছে, গ্রন্থটিতে প্রচুর পরিমাণে উদাহরণ উপস্থাপন করা হয়েছে। যাতে করে পাঠক কোন বিষয় অধ্যয়ন করার পর, পুনরায় উদাহরণগুলো থেকে সে বিষয়গুলো আরও সহজে অনুধাবন করতে পারেন। আর উদাহরণগুলো উপস্থাপন করার ক্ষেত্রেও আরবীর সাথে সাথে বাংলা এবং ইংলিশ অর্থও সংযুক্ত করা হয়েছে। এছাড়া বইটিতে যতগুলো উদাহরণ পেশ করা হয়েছে, তার প্রায় ৯৯% উদাহরণ পবিত্র কুরআন আল-কারীম থেকে উপস্থাপন করা হয়েছে। আলহামদুলিল্লাহ।

৫। সর্বোপরি আমার এই দীর্ঘ ৫ বছরের গবেষণায় আমি বলতে পারি যে, এ বিষয়ের উপর এমন স্টাইলে বই এটাই প্রথম। কথাটি আমি অহংকার করে বলছি না বরং এটা আল্লাহ তায়ালার দান করা তৌফিক, যা তিনি আমাকে দান করেছেন। আলহামদুলিল্লাহ। আমি লক্ষ্য করে দেখেছি, বইটি লেখার শুরু থেকে নিয়ে শেষ করা পর্যন্ত যখন যা প্রয়োজন, সব কিছু মহান আল্লাহ তায়ালা আমার সামনে এনে দিয়েছেন। আমি নিজেও জানতাম না, একটা টপিকের পর আর একটা টপিক কি লিখবো, কিন্তু আলহামদুলিল্লাহ, অবাক হয়ে লক্ষ্য করেছি, একটা টপিক লিখা শেষ হতে না হতেই, তার পরের টপিকটা মাথায় এসে ঘুরা ফিরা করেছে। আর এভাবেই দীর্ঘ ৫ বছরে শেষ হয়েছে, আমার এই “আল-কুরআনের ভাষা শিক্ষা” নামক গ্রন্থটি। আলহামদুলিল্লাহ।

৬। গ্রন্থটি সর্বমোট ৩৬২ পৃষ্ঠা এবং ১০টি অধ্যায়ে সমাপ্ত হয়েছে। আলহামদুলিল্লাহ। তবে আরও কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায় রয়েছে, যা কুরআনের ভাষা আয়ত্ত করতে অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারতো। কিন্তু সময়ের অভাবে সে অধ্যায়গুলো আমি সম্পূর্ণ করতে পারিনি। তাই সে অধ্যায়গুলো এই সংস্করণে যুক্ত করা সম্ভব হলো না। আসলে সেই অধ্যায়গুলো সম্পূর্ণ করার জন্য যে পরিমাণ সময় দরকার, তা আমি আমার কর্মব্যস্ততার জন্য এই মুহূর্তে দিতে পারছি না। মহান আল্লাহ তায়ালার কাছে তৌফিক ভিক্ষা চাচ্ছি এবং সকলের কাছে দুয়া চাচ্ছি। মহান আল্লাহ তায়ালা যেন আমাকে ভবিষ্যতে ঐসকল অধ্যায়গুলো সম্পূর্ণ করার এবং পরিবর্তী সংস্করণে তা সংযুক্ত করার তৌফিক দান করেন। ইনশাআল্লাহ।

সর্বোপরি আমি শতভাগ বিশ্বাস করি যে, গ্রন্থটি থেকে সকলেই উপকৃত হবেন। ইনশাআল্লাহ। মহান আল্লাহ তায়ালা আমাদের সকলের নেক কাজগুলোকে কবুল করে নিক এবং পাপ কাজগুলোকে ক্ষমা করে দিয়ে সেখানে নেকি দিয়ে পরিপূর্ণ করে দিক। আর মৃত্যুর সময় আমাদেরকে পরিপূর্ণ ঈমান এবং আমলের সাথে মৃত্যু দান করুক। আমিন। ছুম্মা আমিন।

বইটি একটু পড়ে দেখুন

লেখক

মোঃ সেলিম হোসেন

প্রকাশনী

HatBazar365.com

Title আল-কুরআনের ভাষা শিক্ষা
Author
Publisher
Edition 2nd Published, March-2021
Number of Pages 375
Country বাংলাদেশ
Language বাংলা/ ইংলিশ/ আরবী

Based on 11 reviews

4.9 overall
10
1
0
0
0

Add a review

  1. Ariful Islam

    বইটি নিয়ে আমার কিছু বলার নেই। শুধু বলবো এমন বই আরও অনেক আগেই ছাপানো উচিৎ ছিল। তাহলে অন্তত আমার মত নাদান, কিছু একটা শিখতে পারতাম। এটা আসলে বই নয়, এটা এটা হিরার টুকরা। মহা সম্পদ। এই হিরার টুকরা আর মহা সম্পদের যথা যথ মর্যাদা আমাদের দেয়া উচিৎ।

    Ariful Islam

  2. শফিকুল ইসলাম

    মাশাআল্লাহ। আরবী ভাষা শিক্ষা করা যে এতটা সহজ, এই বইটি না পড়লে আমি তা কখনোই বুঝতে পারতাম না। এত সুন্দর করে সুসজ্জিতভাবে সাজিয়ে গুছিয়ে বইটি করা হয়েছে, দেখে আমি অনেক বিস্মিত। অনেক অনেক কিছু শিখার রয়েছে বইটিতে। সুক্রিয়া

    শফিকুল ইসলাম

  3. আব্দুল্লাহ আল মামুন

    আলহামদুলিল্লাহ। এক কথায় অসাধারণ একটা বই। এমন একটি বই ই আমার দরকার ছিল। বইটি পেয়ে আমি অনেক আনন্দিত। আল্লাহ কবুল করুক। আমীন

    আব্দুল্লাহ আল মামুন

  4. জয়নাল আবেদিন

    অসাধারণ একটি বই । প্রথমে ধার করে পড়েছি এরপর অর্ডার করছি। জানার আছে অনেক কিছু। ৭০০ টাকা খরছ করে মনে হচ্ছে ৭০০ কটি টাকা পরিমান উপকৃত হলাম।

    জয়নাল আবেদিন

  5. শিল্পী আক্তার

    অসাধারণ একটি বই । কুরআন বুঝা অনেক সহজ হয়ে গিয়েছে আমার কাছে । আমি মনে করি প্রত্যেক প্রাপ্ত বয়স্ক ও টিনেজার সবারই এই বইটা একবার হলেও পড়া উচিৎ ।

    শিল্পী আক্তার

  6. Hafizur Rahman

    এই বইটি পড়ে অনেক কিছু শিখলাম, যা আগে জানতাম না, আল্লাহর অশেষ রহমত এই বইটিতে, ধন্যবাদ hatbazar365.com কে। এই বইটি আমার জিবনকে এখন এক নাম্বার বই।

    Hafizur Rahman

  7. সরল মানুষ

    হৃদয় ও আত্মার পুষ্টি ও সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে সহায়ক অনুপম একটি বই। সরল-সাবলীল ভাষায় লেখকের ভাবকে পুরোপুরি সফলভাবেই ধারণ করেছে। আল্লাহ সংশ্লিষ্ট সকলকে উত্তম প্রতিদান দিক।

    সরল মানুষ

  8. মিম আক্তার কল্পনা

    বইটি সত্যিকারেই তার নামের সার্থকতা রেখেছে। আর আমি তা হৃদয়দিয়ে অনুভব করছি। আর এত সাবলিল ও সুন্দর অনুবাদ হবে তা সত্যিই ভাবিনি। ( From the heart of an every night Noman listener )

    মিম আক্তার কল্পনা

  9. সুমি

    আমার জীবনে দেখা সেরা একটি বই। বইটির দাম ৬০০ না হয়ে, ৬ কটি হওয়া উচিৎ ছিল

    সুমি

  10. Parvin Sultana

    সত্যই অসাধারণ একটি বই।
    এমন বই অনেক আগেই বের করা উচিৎ ছিল। আমি সত্তিই বিস্মিত এত সুন্দর একটি বই পেয়ে। ধন্যবাদ

    Parvin Sultana

  11. Tahmina Rahman

    জীবনে আর কিছু না হোক। এই বইটি যে পেয়েছি, এতেই আমি খুশি। বইটি ৬০০ না হয়ে, ৬ বিলিয়ন হওয়া উচিৎ ছিল। ধন্যবাদ সকলকে।

    Tahmina Rahman